আমি যে কারনে জাফর ইকবালকে অপছন্দ করি

28/11/2013 01:18

ফেস বুকে ইদানিং অনেকেই জাফর ইকবালের জন্যে মায়া কান্না শুরু করেছেন। তাদের অনেকেরই চোখ গড়িয়ে পানি পড়েছে!!  অনেকের স্ট্যাটাস দেখে মনে হয় জাফর ইকবাল ঈশ্বর হয়ে গেছেন। তিনি যা বলবেন আর যা করবেন তাই ভাল, তাই খাঁটি। এর মধ্যে আবার কেউ ঘেউ ঘেউও শুরু করে!

 

বেশ আগে তার একটা লেকচার শুনার দুর্ভাগ্য আমার হয়েছিল।  কম্পিউটার ক্লাসে সম্পূর্ণ অপ্রাসঙ্গিক ভাবে চলে এসেছিল বোরকা! তিনি বললেন তার এক ছাত্রী তাকে স্যার বলে খোঁজ খবর জানতে চাইলে তিনি চিনতে না পেরে বললেন তুমি কে। ছাত্রী পরিচয় দিলে তিনি বলেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ে তুমি বোরকা পড়ে আসতে তাহলে তোমাকে চিনব কিভাবে? আর এখনও তো তুমি বোরকা পড়ে আছ! তোমাকে চিনব কিভাবে? তার পরে অনেকটা রাগ করেই নাকি তিনি বলেছিলেন তোমরা বোরকা না পরে থাকতে পারো না? নাস্তিক এই লেখক খুবই চালাক প্রকৃতির। শেয়ালের সাথে তার চেহারার মিল হয়ত সে কারনেই!!

 

আপনারা যারা জাফর ইকবালের ভক্ত আমি তোমাদেরকে বলি, কট্টর পন্থী অয়ায়ামীলীগ ছাড়া জাফর ইকবালের অন্য পরিচয় গুলো আমার কাছে মেকি! জাফর ইকবাল বেশ কিছুদিন আগে তোমরা যারা শিবির কর নামে একটি প্রবন্ধ লিখেছিলেন। তিনি বলেছিলেন শিবিরের কয়েকটি ছেলে তার কাছে বিজ্ঞান বিষয়ক শিবিরের নিজস্ব প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত কয়েকটি বই নিয়ে এসেছিল তার কাছে! তিনি তাদেরকে অপমান করে তাড়িয়ে দিয়েছিলেন। এটা তিনি নিজেই তার প্রবন্ধে লিখেছিলেন! এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে, সেই ছাত্র গুলো যদি কোন ভুল করে থাকত তাহলে তিনি তাদেরকে শুদ্রে দেন নি কেন? আর তারা তো তার কাছে পর্ণো গ্রাফির বই নিয়ে যায় নি! হয়ত গেলে তিনি নিজেই বাসায় নিয়ে আদর যত্ন করতেন। যেহেতু ইউ টিউবের একটা ভিডিও তে দেখা গেছে তিনি ছাত্রীদের সাথে মাতালের মত করে লাফালাফি ঝাপাঝাপি করছেন। আমার মনে হয় এক প্যাকেট কনডম নিয়ে গেলে তিনি আরও খুশি হতেন!  জাফর ইকবালের ঐ প্রবন্ধ পড়ে আমার শিবির সম্পর্কে আরও বেশি কিউরিসিটি হল। খবর নিয়ে জানলাম শিবির প্রতি বছর বিজ্ঞান বিষয়ক অনেক গুলো জার্নাল বের করে তাদের নিজস্ব প্রকাশনী থেকে। একটা ছাত্র সংঘটনের ছাত্ররা যখন বিজ্ঞান নিয়ে জার্নাল বের করছে সেখানে আমাদের জাফর সাহেব হাসিনার সোনার ছেলে যারা ধর্ষণের সেঞ্চুরি করে, দিন দুপুরে বিশ্বজিৎ খুন করে আর তিনি সেই কুলাঙ্গারদের নিয়ে গর্ব করেন তখন আমার দ্বিতীয়বার চিন্তা করতে হয়।

 

শুধু তাই নয়! যখন বি সি এস এর কোটা বিরুধি আন্দোলনে ছাত্রলীগ হামলা করেছিল তখন সুচতুর জাফর ইকবাল চুপ থেকে ছিলেন! যখন আওয়ামীলীগের কিছু কুলাঙ্গার এম সি কলেজের হোস্টেল পুড়িয়ে দিয়েছিল তখনও টু শব্দ করেন নি! হাসিনার BAL এর সরকার যখন রামপাল, টিপাই, টিফফা করল তখনও চালাক শেয়ালের মত দূর থেকে আমাদের দেশপ্রেমিক!! জাফর সাহেব চুপ রইলেন!  জাফর সাহেবের এমন কাণ্ডের গল্প বলতে থাকলে আমার ঘুমানুর সময় চলে যাবে! তবুও আমাদের কিছু ...... জাফর ইকবালকে ঈশ্বর ভাবতেই বেশি পছন্দ করেন! অথচ আমার কাছে তাকে কেবলই আওয়ামীলীগের কর্মী মনে হয়। এর চেয়ে বেশি কিছু নয়। হ্যা এটা আপনাদের নিজেদের ব্যাপার! আপনাদের খারাপ লাগতেই হবে এমন কিছু নয় তবে কারও ঘৃণা লাগলে তাকে ঘৃণা করতে দিন!

 

ডারউইন অনেক বড় বিজ্ঞানী ছিলেন কিন্তু তাকে শ্রদ্ধা করতে গিয়ে যদি আমি বিবর্তনকে মেনে নেই তবে সেটা আমার ধর্মের সাথে সাংঘর্ষিক হয়। আমি স্বীকার করি তিনি অনেক ভাল একজন কম্পিউটার সায়েনটিস্ট, খুব ভাল একজন লেখক  তবুও তিনি একজন ভাল মানুষ নন! অন্তত আমার কাছে নন।